Contact for queries :

ধাঁধার যোগ্যতায় রাজ্য জয় – ইডিপাস এবং গ্রীক পুরাণের গল্প

বুদ্ধিমত্তার গুরুত্ব এবং একটি কালজয়ী গল্প

তুমি যদি প্রাচীন গ্রীসে থাকতে আর থিবস নামক শহরে ঢুকতে চেষ্টা করতে, তাহলে তুমি হয়তো স্ফিঙ্কসের মুখোমুখি হতে। স্ফিঙ্কস হচ্ছে গ্রীক পুরাণের এক ভয়াল চরিত্র। তাকে গ্রীক পুরাণে সন্ত্রাসের রাজা বলা হয়। ধারনা করা হয় যে স্ফিঙ্কসের ছিলো সিংহের শরীর, আর মানব মস্তক। গ্রীক পুরাণ মতে, স্ফিঙ্কস  থিবস শহরে আতঙ্কের এক বিশাল উৎস ছিল। তার অত্যাচার আর সন্ত্রাসের গল্প আজ গ্রীক পুরাণের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। তার আতঙ্কের গল্পটি অনেকটা এরকম। যিউস – সবচেয়ে ক্ষমতাধর-  গ্রীক দেবতার নয়টি মেয়ে ছিলো। তাদের বলা হতো মিউস। এই নয়জন মিউসেষ নয়টি বিশেষ বিষয়ে জ্ঞ্যান আর অভিজ্ঞা ছিলো। এদের মধ্যে কেউ কেউ ছিল কবি, ইতিহাসবিদ, সাহিত্যিক, কৌতুক অভিনেতা সহ আরো নানারকম প্রতিভা।

 ধারণা করা হয় যে, যিউসের কোন এক কন্যার কাছ থেকে স্ফিঙ্কস একটি ধাঁধা শিখেছিলো। ধাধাটি ছিলো এরকমঃ এরকম কি প্রাণী আছে যার গলার স্বর একটি, কিন্তু সকালে হাটে চার পায়ে, দুপুরে হাটে দু পায়ে, কিন্তু, রাতে হাটে তিন পায়ে? এই ধাঁধাটিকে ঘিরে স্ফিঙ্কস থিবসকে ঘিরে এক ভয়াবহ আবহ তৈরি  করেছিলো। 

 যদি কেউ থিবসের দরজায় প্রবেশ করতে চাইতো, স্ফিঙ্কস তাকেই এই ধাঁধা জিজ্ঞেস করতো। আর কোন কারনে যদি স্ফিঙ্কসের এই ধাঁধার উত্তর দিতে না পারত, তাহলে তাকে স্ফিঙ্কস হত্যা করতো। কি ভয়াবহ! একটি ধাঁধার উত্তর না দেয়া জন্যে জীবন দিতে হতো। কিন্তু রাজপুত্র ইডিপাস যখন থিবসে প্রবেশ করতে চেয়েছিল, সে এই ধাঁধার উত্তর পেরেছিলো। ইডিপাসের এই উত্তরে স্ফিঙ্কস তীব্র ক্ষোভে, দুঃখে, আর কষ্টে আত্মহত্যা করেছিল। পরবর্তীতে ইডিপাস থিবসকে এই ভয়ঙ্কর অত্যাচারী স্ফিঙ্কসএর হাত থেকে শুধু রক্ষাই করেনি, বরঞ্চ ইডিপাস থিবসকে শাসনও করেছিলো।

যারা এখনো উত্তরটি জানো না বা পারোনি, তাদের জন্যে আমি উত্তরটি বলে দিচ্ছি। উত্তরটি হচ্ছে মানুষ। মানুষ শিশু অবস্থায় চার পায়ে হামাগুড়ি দেয়। যৌবন অবস্থায় দুপায়ে হাঁটে। আর জীবনের সায়াহ্নে দু পা আর এক লাঠিতে ভর করে হাটে।

গ্রীক পুরাণের এই গল্প থেকে প্রতিয়মান যে, বুদ্ধিমত্তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যা থিবসকে স্ফিঙ্কসের সন্ত্রাসের হাত থেকে বাচিয়ে ছিলো। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সমস্যা সমধানের যোগ্যতা এবং ক্ষমতা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সমস্যা সমাধানের সূদুর প্রসারী প্রভাব রয়েছে বিভিন্ন ক্ষেত্রে — চাকরি, ব্যবসা, ভর্তিক্ষেত্রে যোগ্যাতাসহ আরো নানাবিধ ধরনের ক্ষেত্র। আশা করা যায়, গ্রীক পুরাণের এই গল্প তোমাদের অনুপ্রাণিত করবে জীবনে আরো কুশলি সমস্যা সমাধানকারি হিসেবে। প্রাচীন গ্রীসে তুমি যদি একজন কুশলি সমাধানকারি হতে, তাহলে তুমিও হয়তো ইডিপাসের মতো স্ফিঙ্কসের হাত থেকে থিবসকে রক্ষা করতে পারতে।

তথ্য এবং ছবিসূত্রঃ ব্রিটানিকা

 

 

                                                                                          
April 1, 2018

Please Comment Below
Designed and Developed by © BYLC. All rights reserved.